শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
৯৫ বছরে এক মিনিটের জন্যও বন্ধ হয়নি কোরআন তেলাওয়াত যে মসজিদে! এবার নায়িকা জয়া আহসানের চার সেকেন্ডের ভি’ডি’ও অ’নলাইনে ভা’ইরা’ল পরবর্তী দুই ম্যাচে থাকবেনা নেইমার। মাটিতে বাতিস্হাপন করেছেন ফোন আসক্তদের সাবধান করতে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চট্টগ্রাম আগমন। অসহায় শিল্পী মেরা মিয়ার জন্য মানবিক সাহায্যের আবেদন। চট্টগ্রামে ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ২৬ জন। সাবেক মন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধূরী ইন্তেকাল করেন। মাল্টিক্রপ কম্বাইন হারভেস্টার গাড়ী কৃষকদের মাঝে হস্তান্তর করেন ভুমি মন্ত্রী জাবেদ এমপি। মেয়াদ বাড়ল বান্দরবনে পর্যটক ভ্রমণের নিষেধাজ্ঞার আনোয়ারায় ইসলামী ব্যাংকের শাখার উদ্বোধন অনুষ্ঠান সম্পন্ন। গাউছিয়া কমিটি কর্তৃক জেদ্দা শাখায় পবিত্র ঈদ-এ মিলাদুন্নবী (সঃ)পালিত।

১০ টাকায় এক কেজি গরুর মাংস, সাথে ফ্রী পোলাওয়ের চাল

Coder Boss
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৭ মে, ২০২২
  • ১০১ Time View

এক কেজি গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ১০ টাকায়! সাথে বিনামূল্যে পাওয়া যাচ্ছে এক কেজি পোলাওয়ের চাল ও মাংসের মসলা। ঈদের দিন এমনই এক বাজারের দেখা মিলেছে মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী উপজেলায়। নিম্ন আয়ের মানুষের সাথে ঈদের আনন্দকে ভাগ করে নিতে

‘গরীবের কসাইখানা’ নামের ঈদ বাজারের আয়োজনটি করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বিক্রমপুর মানব সেবা ফাউন্ডেশন। মঙ্গলবার (৩ মে) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার কামারখাড়া স্কুল মাঠে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

তাতে ১০ টাকার বিনিময়ে নিম্ন আয়ের তিন শতাধিক পরিবার ১ কেজি গরুর মাংস কেনে এবং সঙ্গে পায় ১ কেজি পোলাওয়ের চাল ও মাংসের মসলা।উপজেলার হাইয়ারপাড় গ্রামের সেফালি বেগম (৩৫) বলেন, বাজারে অনেকগুলো গরুর জবাই করেছে।

তা দেখে ছোট ছেলে বায়না ধরেছে ঈদে গরুর মাংস খাবে।তিনদিন ধরে ছেলেকে বোঝানোর চেষ্টা করছি কিন্তু গরুর মাংস তো সাড়ে ছয়শ টাকা কেজি। ঈদের দিন ছেলে মন খারাপ করবে।

সেই চিন্তায় ঘুম আসেনি। কিন্তু আল্লাহ ছোট বাচ্চাটার মনের ইচ্ছে পূরণ করেছেন। হুট করে এতো কম টাকা দিয়ে গরুর মাংস কিনলাম। এই দামে তো গরুর মাংস আমার বাবা-দাদারাও কিনে নাই।

কামারখাড়া এলাকার জয়মালা বেগম (৬৫) বলেন, কুরবানির ঈদ ছাড়া গরুর মাংস খেতে পারি না। কুরবানির ঈদ এলে মানুষ গরুর মাংস দেয়।বছরের এক ঈদেই মাংস খাই। রোজার ঈদে গরুর মাংস আর পোলাও চাল খেতে পারব তা ভাবতেই পারিনি। এর আগেও এখান থেকে ১০ টাকায় ইফতারির তেল-খেজুরসহ ৭-৮ প্রকার খাবার কিনেছিলাম।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য রিয়াদ হোসাইন বলেন, ঈদের দিন তিন শতাধিক পরিবারের আনন্দকে দ্বিগুণ করতে পেরে আমরা আনন্দিত। সংগঠনের সদস্যদের মাসিক চাঁদা ও অনুদান দিয়ে আমাদের এই ছোট আয়োজন। তবে আমাদের পরিকল্পনা আরো বড় ছিল।

আর্থিক সংকটের কারণে যা পরিপূর্ণ বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। আমরা প্রত্যাশা করি আগামীতে সকলের সহযোগিতায় আরও বেশি সংখ্যক পরিবারের পাশে থাকতে পারবো। সংগঠনের সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক হিরা বলেন, বাজারে মাংসের দাম ৬৫০ থেকে ৭০০ টাকা।

যা সমাজের নিম্ন আয়ের মানুষের পক্ষে কেনা সম্ভব নয়। তাই আমরা তাদের সাথে ঈদ আনন্দ ভাগ করে নিতে এমন ব্যতিক্রমী আয়োজন করেছি। ঈদের দিন আয়োজন করার মূল লক্ষ্য ছিল,

বিত্তবানদের মতো তারাও যেন ঈদের দিন বাজার থেকে মাংস কেনার অনুভূতি লাভ করেন। তাদের মুখে তৃপ্তির হাসি দেখে এ রকম আয়োজন করতে আমাদের আরও উৎসাহ যোগায়।

উল্লেখ্য, এর আগে রমজানের শুরুতে ১০ টাকায় ইফতার সামগ্রী নিয়ে ‘ইফতার বাজার’ আয়োজন করেছিল সংগঠনটি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

© All rights reserved © 2022 Coder Boss

Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102